আইসিটি ক্লাব হ্যান্ডবুক (BOOK)

16. আইসিটি ক্লাব আইডিয়া সম্পর্কিত

16.2. যে সমস্যাসমূহের সমাধানে এই আইডিয়ার উৎপত্তি এবং যেভাবে দেশ উপকৃত হবে

সমস্যা ০১:

২০৪১ সালের মধ্যে ডিজিটাল, উন্নত বাংলাদেশ গঠনের লক্ষ্যে প্রয়োজন দেশপ্রেমিক, সৎ ও প্রযুক্তিতে বিশেষভাবে দক্ষ জনশক্তি। এই জনশক্তি নির্মাণ করতে হবে আগামী ১০ বছরে। এজন্য প্রয়োজন প্রচুর প্রযুক্তি ট্রেনিং এর ব্যবস্থা করা এবং তা হতে হবে নির্দিষ্ট দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনার মাধ্যমে। বাংলাদেশ সরকার বর্তমানে যে ফ্রি ট্রেনিং এর প্রকল্পগুলো গ্রহণ করেছে তার সাথে "আইসিটি ক্লাব" মিলে আরো বেশি ভূমিকা রাখতে পারে।

সমস্যা ০২:

নবম শ্রেণি থেকে শিক্ষার্থীরা সাধারণত ৩টি ভাগে ভাগ হয়ে যায় – বিজ্ঞান বিভাগ, ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগ, মানবিক বিভাগ। এই বিভাগ বেছে নেয়ার কাজটা শিক্ষার্থীরা সবসময় স্বেচ্ছায় বা সচেতনভাবে করেনা। ফলে দেখা যায় যে, যারা বিজ্ঞান ছাড়া অন্যান্য বিভাগে পড়ালেখা করে তারা তুলনামূলকভাবে বিজ্ঞান বা প্রযুক্তি সম্পর্কিত লেখাপড়া থেকে অনেক দূরে সরে যায় এবং পরবর্তীতে চাইলেও সহজে এই ট্র্যাকে আসতে পারেনা। শুধুমাত্র স্ব-উদ্যোগে যারা প্রযুক্তি জ্ঞান অর্জন করতে চায় তারা শিখে। 

ক) এর ফলে শিক্ষিত জনশক্তির আনুমানিক তিনভাগের দুইভাগ নবম শ্রেণি থেকেই প্রযুক্তিজ্ঞানে প্রায় অন্ধ। যদিও সরকার বর্তমানে পাঠ্যক্রমে আইসিটি বিষয় অন্তর্ভুক্ত করেছে, তবে তার যথাযথ শিখন ও শিক্ষণের লক্ষ্যে "আইসিটি ক্লাব" গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারে।

খ) যেসব শিক্ষার্থীর প্রযুক্তিতে আগ্রহ আছে কিন্তু ব্যবসায় শিক্ষা বা মানবিক বিভাগে পড়ালেখা করেছে তারা চাইলেও সহজে প্রযু্ক্তি প্রশিক্ষণ বা প্রযুক্তি জ্ঞান অর্জন করার সুযোগ পায়না। তাদের সুযোগ করে দেয়ার জন্য প্রয়োজন "আইসিটি ক্লাব"।

 

সমস্যা ০৩:

বেকার সমস্যা বাংলাদেশের একটি প্রধান সমস্যা। বর্তমান প্রেক্ষাপটে "প্রযুক্তিতে দক্ষ জনশক্তির অভাব" আরো একটি বড় সমস্যা ।  "আইসিটি ক্লাব" স্থাপনের মাধ্যমে  গড়ে উঠা প্রযুক্তি জ্ঞানে ও প্রযুক্তি ব্যবহারে দক্ষ জনশক্তির কর্মসংস্থানের পথ সুগম হবে।

সমস্যা ০৪:

অন্যান্য দেশের ‍তুলনায় বাংলাদেশে ফ্রিল্যান্সারের সংখ্যা কম যারা বৈদেশিক মুদ্রা অর্জনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারে। প্রতিবেশী অনেক দেশের তুলনায় আমরা এই দিকে অনেকটা পিছিয়ে আছি। "আইসিটি ক্লাব" স্থাপনের মাধ্যমে আমাদের প্রচুর দক্ষ ফ্রিল্যান্সার তৈরি হবে।



==============